"অন্য গাছের ছাল, এখন খুলে যাচ্ছে" - দিলীপ ঘোষ

  • Admin
  • রাজ্য
  • 09 Jul 2021
  • 586
  • 0

রাজ্য বিজেপির অন্দরে এখন আন্তর দন্দ এখন চরমে। বঙ্গ বিধানসভা ভোটের আগে পদ্মমুখী স্রোত এখন ম্লান হয়ে উলটো পথে বইছে। বঙ্গ বিধানসভা ভোটে পরাজয়ের পর থেকে রাজ্য বিজেপির একাধিক নেতা নেত্রীর মুখে এখন বেসুরো সুর। সেই সুরকে এক ধাপ বাড়িয়ে দিয়েছে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব শুভেন্দু অধিকারিকে বিরোধী দলনেতা হিসাবে বিজেপিতে বেশি গুরুত্ব দেওয়াকে নিয়ে

 

প্রসঙ্গগত বঙ্গ বিজেপি ভিতর ভিতর কয়েকটি লবিতে বিভাজন হয়ে শুরু করেছে। যার প্রাধান কারন গুলির মধ্যে একটি হল, পুরানো নেতা নেত্রীদের দলে গুরুত্ব হ্রাস ও অন্য দল থেকে আসা নেতা নেত্রীদের গুরুত্বপুর্নপদে দায়িত্ব দেওয়া নিয়ে। গত বুধবার দলের অন্তর দন্দকে আরও ত্বরান্বিত করেছে বিজেপি যুব মর্চার সভাপতি সৌমিত্র খাঁর পদথেকে ইস্থাফা দেওয়ার টালবাহানা নিয়ে ফেসবুকে লাইভকে ঘিরে। এতে দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ তাকে "জোকার", "অর্বাচীন" বলে আখ্যা দেওয়া। অন্যদিকে পাল্টা সৌমিত্র খাঁর দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে ব্যবস্থা নিতে বলা কে নিয়ে। এই নিয়ে মুলত দুজনের কাদা ছোঁড়া ছুড়ি কয়েক দিন যাবদ চলছিল। তাতে আবারও একহাত নিলেন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

 

এদিন দিলীপ ঘোষ অন্য দল থেকে আসা নেতা নেত্রীদের উদ্দেশ্যে বলেন - "যারা এসেছিল বিজেপি বিভিন্ন সময় জিতে যাবে বলে সুবিধা পাওয়ার আসায়, তারা এখন সরে যাচ্ছে। বিজেপি এখন ভাঙ্গেনি অন্য গাছের লাগিয়ে ছিলাম, এখন খুলে যাচ্ছে"। এদিন পাল্টা বলতে ছাড়েন না সৌমিত্রও। তিনি বলেন "আমাদের বিরোধী দলনেতা দিল্লী গিয়ে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে ভুল বঝাচ্ছেন"। এই বলে শুভেন্দু অধিকারিকে একহাত নেন। এছাড়াও দিলীপ ঘোষকে অবুঝ বলে আখ্যায়িত করে।

 

 

    বিজ্ঞাপন


    মন্তব্য - আলোচনায় যোগদান

    বিজ্ঞাপন