অন্তঃসত্ত্বা বা অন্তঃসত্ত্বা হতে চলেছেন তাহলে বিধিনিষেধ গুলি অবশ্যই মেনে চলুন

  • Admin
  • স্বাস্থ
  • 02 Sep 2021
  • 372
  • 0

গর্ভাবস্থায় একজন হবু মায়ের তার ভবিষ্যৎ সন্তানের জন্য অনেকটাই সর্তক থাকতে হয়। কারন একটু খানি অনিয়ম গর্ভস্থ ভ্রনের অনেক ক্ষতি হওয়ার সম্ভবনা থাকে। সন্তানসম্ভবা এক জন মা কি ধরনে খাবার খাবে, কিভাবে ঘুমাবে, কি কি কাজ করা নিষেধ ইত্যাদির উপর অনেকখানি গর্ভস্থ সন্তানের সুস্বাস্থ্য নির্ভর করে। এই জন্যই হবু মায়ের অবশ্যই নিচের দেওয়া বিষয় গুলির উপর ধ্যান রাখা প্রয়োজন।

 

জিম বা শরীরচর্চা : জিম (gym) বা শরীরচর্চা আমাদের শরীরকে সুস্থ ও সবল রাখে। সে জন্য সুস্বাস্থের প্রয়োজনে প্রত্যেক মানুষের নিয়মিত শরীরচর্চা করা উচিৎ কিন্তু  জিম (gym) বা শরীর চর্চার ফলে আমাদের শরীরে নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে। সেরকম গর্ভাবস্থায় মায়ের গর্ভস্থ সন্তানের সুস্বাস্থের জন্য নিয়মিত শরীরচর্চা বা ব্যায়াম করা প্রয়োজন। সেক্ষেত্রে যোগ অভ্যাস জাতীয় শরীরচর্চা করা ভালো কিন্তু ভারী জিম (gym) বা শরীরচর্চার সরঞ্জাম তোলা ফেলা করা বা দৌড় ঝাপ করা একদমই উচিৎ নয়, এক্ষেত্রে হিতে বিপরীত হতে পারে।

এক্ষেত্রে অতি অবশ্যই মনে রাখা প্রয়োজন গর্ভাবস্থায় কোন ধরনের শরীরচর্চা একজন সন্তানসম্ভবা মায়ের করা উচিৎ, তা চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী করা উচিৎ।

 

 

আরও পড়ুন : ফের বাজার কাঁপাতে আসছে Realme-এর নতুন মোবাইল

 

 

ধূমপান ও মদ্যপান : অতিরিক্ত ধূমপান ও মদ্যপান করা স্বাভাবিক মানুষের স্বাস্থের উপর ক্ষতিকারক প্রভাব ফেলে। সেক্ষত্রে গর্ভাবস্থায় একজন হবু মায়ের ধূমপান ও মদ্যপান করা একদমই করা উচিৎ নয়। অনেকের ধারণা থাকে যে, অন্তঃসত্ত্বা কালে সল্প পরিমাণে ধূমপান ও মদ্যপান করলে কোন ক্ষতি হয় না। এক্ষেত্রে অতি অবশ্যই মনে রাখা প্রয়োজন যে, গর্ভাবস্থায় একজন হবু মায়ের নেশা করা চিকিৎসা বিজ্ঞান সায় দেয়না।

 

 

 

মশলা যুক্ত খাবার খাওয়া : গর্ভাবস্থায় একজন হবু মায়ের খাদ্য তালিকায় কম মশলাযুক্ত খাবার অন্তরভুক্ত করা উচিৎ। কারন অতিরিক্ত তেল মশলাযুক্ত খাবার খেলে অনেক সময় পেটজ্বালা, আমাশয়, বদহজম ইত্যাদি পেটের সমস্যা দেখা দিতে পারে, যার প্রভাব গর্ভস্থ সন্তানের উপর পড়তে পারে। এছাড়াও অন্তঃসত্ত্বা কালে ফাস্ট ফুড, ভাজা-ভুজি ইত্যাদি এড়িয়ে চলা ভালো।

 

আরও পড়ুন : দীর্ঘ দিন বাঁচতে হলে এই অভ্যাস গুলি অবশ্যই মেনে চলুন

 

ভারী কাজ ও ধুলো ময়লা আবর্জনা পরিষ্কার : গর্ভাবস্থায় ভারী কোন জিনিস তোলা-ফেলা যেমন- জলের বালতি তোলা, টিউবওয়েল পাম্ব করা প্রভৃতি করা একদম উচিৎ নয়, এতে গর্ভস্থ সন্তানের ক্ষতি হতে পারে। গর্ভাবস্থার প্রথম কয়েক মাস কোন প্রকার ভারী কাজ পুরোপুরি না করাই ভালো।

এছাড়াও অন্তঃসত্ত্বা কালে ধুলো ময়লা আবর্জনা পরিষ্কার না করাই ভালো এক্ষেত্রে নানা ধরনের ফাংগাল ইনফেকশন (Fungal infection) ও এলার্জি (Allergies) হওয়ার সম্ভবনা থাকতে পারে। যা প্রভাবে গর্ভস্থ সন্তান ও অন্তঃসত্ত্বা মায়ের ক্ষতি হতে পারে।

 

 

আরও পড়ুন : খুব শীঘ্রই মুক্তি পেতে চলেছে আইফোনের ত্রয়োদশ সংস্করণ (iPhone 13)

 

 

 

অতিরিক্ত ঠান্ডা অথবা গরম জলে স্নান : অন্তঃসত্ত্বা কালে অনেক মহিলা ঠান্ডা অথবা গরম জলে স্নান করতে পছন্দ করেন। এক্ষেত্রে মনে রাখা প্রয়োজন অতিরিক্ত ঠান্ডা অথবা গরম জলে স্নান করার ফলে গর্ভস্থ ভ্রনের শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে  অথবা কমে যেতে পারে। যা ফলে গর্ভস্থ ভ্রনের নানা শারিরিক ক্ষতি হওয়ার সম্ভবনা থাকে।

 

 

 

    বিজ্ঞাপন


    মন্তব্য - আলোচনায় যোগদান

    বিজ্ঞাপন